মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ০৩:২৮ অপরাহ্ন

নোটিশঃ-
রাজৈর নিউজের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম নিত্যনতুন সকল সংবাদ পড়তে আমাদের সাথেই থাকুন
সর্বশেষ সংবাদঃ-
শিবচরে পদ্মা সেতু দেখতে আসা যুবক মটরসাইকেল উল্টে নিহত ঈদের খরচ বাঁচিয়ে শিবচরে গুচ্ছগ্রাম বাসীদের মাঝে সেমাই ও বিরিয়ানী বিতরন ইউএনওর সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে মাদারীপুরে ৪০ গ্রামে ঈদ-উল ফিতর উদযাপন মুকসুদপুরে চেয়ারম্যানের রাইচ মিল থেকে ৫ জুয়াড়ী আটক রাজৈরে কুমার নদের পাড় থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার,পরিবারের দাবি পরিকল্পিত হত্যা,স্বামী আটক রাজৈরে শাজাহান খান এমপির পক্ষ থেকে ঈদ উপহার বিতরণ রাজৈরের শাখারপাড়ে প্রতিবন্ধী পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী ঈদ উপহার দিলেন পৌর মেয়র শামীম নেওয়াজ শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ি রুটে ফেরি চলাচল শুরু, পারাপার করা হচ্ছে জরুরী এ্যামবুলেন্সসহ ব্যাক্তিগত গাড়ি ও পন্যবাহী ট্রাক, পথে পথে পুলিশের ব্যারিকেড টেকেরহাট বন্দরে লকডাউন উপেক্ষা করে ঈদ কেনাকাটায় মানুষের ঢল পশ্চিম গগনে বাঁকা চাঁদ দেখলেই পবিত্র ঈদুল ফিতরের ঈদ
’শেখ হাসিনা তাতপল্লী’র ক্ষতিগ্রস্থদের চেক শিবচরে বিতরন, প্রকল্প এলাকায় ক্ষতিপূরন দেয়ার ঘোষনা প্রকল্প পরিচালকের

’শেখ হাসিনা তাতপল্লী’র ক্ষতিগ্রস্থদের চেক শিবচরে বিতরন, প্রকল্প এলাকায় ক্ষতিপূরন দেয়ার ঘোষনা প্রকল্প পরিচালকের

Shibchar Tat Polli Check Distribution-18.2.20

add 720x200

প্রদ্যুৎ কুমার সরকারঃ মাদারীপুরের শিবচর ও শরীয়তপুরের জাজিরার ১শ২০ একর জায়গায় প্রায় ২ হাজার কোটি টাকায় নির্মানাধীন শেখ হাসিনা তাঁতপল্লীর ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে চেক বিতরন শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে জেলার শিবচর উপজেলা পরিষদে ৩০ জন ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ১৫ কোটি টাকার চেক বিতরন করা হয়। চেক বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রকল্প পরিচালক মোঃ শাহাদাত হোসেন মজুমদার। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামানসহ আরো অনেকে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ’শেখ হাসিনা তাত পল্লী’র ভিত্তিপ্রস্তর করেন। এ প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১৯ শ ১১ কোটি টাকা। প্রকল্পটির জন্য জেলার শিবচর উপজেলার কুতুবপুরে ৬০ একর ও শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবায় ৪৮ একর জায়গা নির্ধারন করা হয়েছে । এ প্রকল্পে অসংখ্য ৬ তলা বিশিষ্ট ভবনে প্রত্যেক তাতীর জন্য ৬ শ ফুটের কারখানা ও ৮ শ ফুটের মধ্যে আবাসন সুবিধা থাকবে। সরকারের পক্ষ থেকে সুতা রংসহ কাচামালের সুবিধা দেয়া হবে। নির্মান হবে আন্তঃজার্তিক মানের শোরুম। প্রশিক্ষন কেন্দ্র। তাতীদের ছেলে মেয়েদের জন্য থাকবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, প্রকল্পটিকে ঘিরে শত শত অবৈধ স্থাপনা তুলে নানান অপতৎপরতা শুরু হলেও মাননীয় চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীর কঠোর ভূমিকায় আমরা সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছি। তার নির্দেশনা অনুসারে প্রকল্পটির ক্ষতিপূরনের চেক প্রকল্প এলাকায় দেয়া হচ্ছে।

প্রকল্প পরিচালক মোঃ শাহাদাত হোসেন মজুমদার বলেন, পদ্মা সেতুর পাশেই এটি বহুল কাঙ্খিত প্রকল্প। এই প্রকল্পের মাধ্যমে তাত শিল্প আন্তজার্তিক রুপ নেবে। ক্ষতিপূরনের চেকগুলো আমরা ১৫ দিন পরপর এসে প্রকল্প এলাকায় দেব।

Comments

comments

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

add 720x200

Leave a Reply




add 300x600

উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক