শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:১৯ অপরাহ্ন

নোটিশঃ-
রাজৈর নিউজের ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম নিত্যনতুন সকল সংবাদ পড়তে আমাদের সাথেই থাকুন
সর্বশেষ সংবাদঃ-
শিবচর উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন ঘিরে উৎসবমূখর পরিবেশ রাজৈরে মাস্ক না পড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা মুকসুদপরে এলাকায় অধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ২ পক্ষের মধ্যে সং’ঘ’র্ষ ১ যুবক নি’হ’ত, আ’হ’ত ২০ রাজৈর পৌর নির্বাচনঃ বাছাইপর্বে ২ জন মেয়র প্রার্থীসহ ১২ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল রাজৈর পৌরসভা নির্বাচনঃ মেয়র পদে ৭,সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৯জন ও কাউন্সিলর পদে ৩৫ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল রাজৈরে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ রাজৈর পৌরসভাকে আধুনিক পৌরসভা করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি-শামীম নেওয়াজ মেয়র রাজৈর পৌরসভা রাজৈর পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেলেন নাজমা রশিদ নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে বাল্য বিয়ে,ফেসে যাচ্ছেন কাজী ও উকিল রাজৈরে বিদ্যালয়ে আ্যাসাইনমেন্টের নামে অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ
বাড়ি ছাড়তে বলায়ঃশিবচরে ভাড়াটিয়া পক্ষের হামলায় আহত বাড়িওয়ালা ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু

বাড়ি ছাড়তে বলায়ঃশিবচরে ভাড়াটিয়া পক্ষের হামলায় আহত বাড়িওয়ালা ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু

Shibchar Clash Murder

add 720x200

শিব শংকর রবিদাসঃ মাদারীপুরের শিবচর পৌরসভার গুয়াতলা এলাকায় ভাড়াটিয়ার রডের আঘাতে গুরুতর আহত অবস্থায় বাড়িওয়ালা ঢাকার ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে আহত আবু আলম আকন মারা যান। হামলার পর তার বুকে প্রচন্ড ব্যথা অনুভব হওয়ায় ডাক্তাররা হৃদরোগ সনাক্ত করে রিং স্থাপন করার পর রাতেই তার মৃত্যু হয়। নিহতের স্ত্রী নারগিস বেগম স্বামীকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে যান।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শিবচর পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের নিহত আবু আলমের ৩ তলা বাড়ির নিচতলায় মায়া বেগম দীর্ঘ প্রায় ৩ বছর যাবৎ ভাড়া থাকেন। মায়া বেগমের বাবার বাড়ি ঠিক উল্টো পাশেই। মায়া বেগম ও তার পরিবারের উচ্ছৃঙ্খল চলাচলে বাড়িওয়ালা আবু আলম আকন দীর্ঘ দিন ধরেই বাড়ি ছেড়ে দিতে তাকে নোটিশ দেয়। কিন্তু ভাড়াটিয়া কিছুতেই বাড়ি ছেড়ে যেতে চায়নি। এরই জেরধরে গত সোমবার দুপুরে (২৪ আগস্ট) বাড়িওয়ালা আবু আলম আকন এর সাথে ভাড়াটিয়া মায়া বেগমের বাগবিতন্ডা হয়। এক পর্যায় ভাড়াটিয়া মায়া বেগমের ভগ্নিপতি বিপ্লব মিয়ার নেতৃত্বে ৬/৭ জনের একটি দল বাড়িওয়ালা আবু আলম আকন ও তার পরিবারের উপর হামলা চালায়। তাকে মারধরসহ বুকে রড দিয়ে আঘাত করে। বুকে রডের আঘাতে এক পর্যায়ে সে মাটিতে লুটিয়ে পরে। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করেন। ঢাকার ইবনে সিনা হাসপাতালে নেওয়া হয়।হাসপাতালে নেওয়ার পর হৃদরোগ ধরা পরে। কর্তব্যরত চিকিৎসক তার বুকে রিং পরান। দুইদিন চিকিৎসার পরও অবস্থা অবনতি হলে বৃহস্পতিবার রাতে (২৭ আগস্ট) চিকিৎসাধীন আবু আলম আকন মারা যান। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী নারগিস বেগম স্বামীকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে যান।

ওই বাড়ির আরেক ভাড়াটিয়া মোঃ রুহুল আমিন জানান, বাড়ি ভাড়া নিয়ে তাদের মাঝে মাঝেই ঝগড়া বিবাদ হতো। গত সোমবার দুপুরে বাড়িওয়ালা ও ভাড়াটিয়ার সাথে ঝগড়া বিবাদ ও মারামারির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে বাড়িওয়ালা আবু আলম আকন গুরুতর আহত হয়। আমিই তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই।

নিহতের স্ত্রী নার্গিস সুলতানা বাকরুদ্ধ কন্ঠে বলেন, মায়ার বাবার বাড়ি উল্টো পাশে হওয়ায় ওরা একসাথে আমার স্বামীর উপর হামলা চালায়। ওরা বুকে কিল ঘুসি ও রড দিয়ে বেদম প্রহার করে। এসময় বুকে প্রচন্ড ব্যাথা হলে প্রথম শিবচর ও পরে ঢাকায় নেয়া হয়।

শিবচর থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ জানান, ভাড়াটিয়া ও বাড়িওয়ালার মধ্যে ভাড়া দেয়া নিয়ে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। মারামারির ঘটনায় নিহত আবু আলম আকনের ভাই বাদী হয়ে শিবচর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। তাকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়। তার হৃদরোগজনিত কারণে বুকে রিং পরানো হয়। একদিন পর সে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

Comments

comments

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

add 720x200

Leave a Reply




add 300x600

উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক