শুক্রবার, ১৮ Jun ২০২১, ০৬:৩৬ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ-
রাজৈর নিউজ অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে আপনাদের স্বাগতম। নিত্যনতুন সকল সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।ফেসবুক পেইজ থেকে আমাদের নিউজে চোখ রাখুন:- https://www.facebook.com/rajoirnews  তাছাড়া সংবাদ এর ভিডিও দেখুন ইউটিউব থেকে  BanglaNews Tube
সর্বশেষ সংবাদঃ-
শিবচরে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নজিরবিহীন নিরাপত্তা গ্রহন করা হয়েছে- জেলা প্রশাসক ড.রহিমা খাতুন শিবচরে সেপটিক ট্যাংক পরিস্কার করতে গিয়ে নিহত ১, আহত ১ শিবচরের পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে গভীর রাত পর্যন্ত নির্বাচনী ইউনিয়নগুলোতে ব্লক রেইড মাদারীপুরের শিবচরে বজ্রপাতে এক কৃষকের মৃত্যু ইউপি নির্বাচনের পোস্টার সাঁটাতে গিয়ে শিবচরে ভ্যান-লেগুনা মুখোমুখি সংঘর্ষে এক কিশোর নিহত রাতের আধারে শিবচরে মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুর রাজৈরে জোড়া খুনের মামলা থেকে রেহাই পেতে নতুন করে খুন,৩ জন গ্রেফতার রাজৈরের হোসেনপুরে ভ্যান চালককে কুপিয়ে হত্যার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করোনার কারণে মাদারীপুরের রাজৈরে ঐতিহ্যবাহী কুম্ভমেলা অনুষ্ঠিত না হওয়ায় ক্ষতির মধ্যে পড়েছে ব্যবসায়ীরা ॥ লাখো ভক্তের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ মাদারীপুরে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা বিষয়ক অবহিতকরণ কর্মশালা
রাজৈরে ভিন্ন ধর্মের ছেলের সাথে প্রেম ও বিয়ে করার অপরাধে কিশোরীকে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতন

রাজৈরে ভিন্ন ধর্মের ছেলের সাথে প্রেম ও বিয়ে করার অপরাধে কিশোরীকে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতন

popy paul

add 720x200

রাজৈর(মাদারীপুর) প্রতিনিধিঃ মাদারীপুরের রাজৈরে ভিন্ন ধর্মের ছেলের সাথে প্রেম ও বিয়ে করার অপরাধে এক কিশোরীকে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে তার পরিবারের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খালিয়া ইউনিয়নের পাল পাড়ায়।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী সুত্রে জানা যায়, খালিয়া পাল পাড়ার সনাতন ধর্মাবলম্বী এক কিশোরীর (১৭) সাথে প্রতিবেশী ইসলাম ধর্মাবলম্বী আবু সাঈদের (২৩) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আবু সাঈদ একই এলাকার আবদুল জলিল শেখের ছেলে। গত ৬ মাস আগে আবু সাঈদ ও ঐ কিশোরী বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে রাজৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাজৈর থানা পুলিশ ৪ দিন পর তাদেরকে উদ্ধার করে কিশোরীকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে এবং আবু সাঈদকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছিল। সেই ঘটনায় পারিবারিক ও সামাজিক সমঝোতার কারনে কিশোরীর বাবা আবু সাঈদকে জামিনে বেরিয়ে আসতে সহায়তা করেছিল। এরপর কিশোরীর বাবা তাকে (কিশোরীকে) নিয়ে সিলেটে নিয়ে যায়। কিন্তু আবু সাঈদ ও কিশোরী সিলেট থেকে আবার পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা সিলেট থানায় মামলা দায়ের করেছিল। পালিয়ে যাওয়ার প্রায় ১ মাস পর ঢাকার আশুলিয়া থেকে পুলিশ তাদেরকে আটক করে নিয়ে আসে। কিশোরীর বয়স ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়ায় তাকে পরিবারের হাতে এবং আবু সাঈদকে জেল হাজতে প্রেরণ করে এবং এখন পর্যন্ত সে (আবু সাঈদ) জেল হাজতেই রয়েছে। এরই মধ্যে আবারও কিশোরী পালিয়ে আবু সাঈদের বাড়ি চলে যায়।আবু সাঈদের স্বজনরা কিশোরীকে নিয়ে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার রাজেশ্বরদী গ্রামে এক বোনের বাড়ীতে রাখে এবং একটি মহিলা মাদ্রসায় ভর্তি করে দেয়। কিশোরীর পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে বাড়ী পৌঁছে দেয়। বাড়ীতে আনার পর প্রায় ১০ দিন তাকে পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে এবং শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন চালায় পরিবারের সদস্যরা। শুক্রবার পর্যন্ত কিশোরীকে শিকল দিয়ে বেধে রাখা হয়েছিল। সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তার পায়ের শিকল খুলে দেয়।

নির্যাতিতা কিশোরী জানায়, আবু সাঈদের সাথে আমার প্রায় সাড়ে তিন বছরের সম্পর্ক। আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহন করে তাকে বিয়ে করেছি। আমাকে পরিবারের লোকজন ধরে এনে দুই পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে এবং শারিরীকভাবে নির্যাতন করে।আমি এখন মুসলিম ধর্মে থাকতে চাই।

কিশোরীর মা জানায়, মান-সম্মানের ভয়ে আমরা মেয়েকে শাসনে রাখি।গত বৃহস্পতিবার পায়ের শিকল খুলে আবারও পালানোর চেষ্ঠা করেছে। এঘটনায় সমাজ আমাদের এক ঘরে করে রেখেছে। তাছাড়া আবু সাঈদের পরিবারের লোকজন সব সময় আমাদের হুমকি দিয়ে আসছে। লজ্জায় মুখ দেখাতে পারিনা।

আবু সাঈদের বাবা আবদুল জলিল শেখ জানান, আমার ছেলের মুক্তি চাই এবং যাতে নিরাপদে থাকতে পারে সে ব্যবস্থা করা দরকার।

রাজৈর মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মাহমুদা আক্তার কনা জানান, একজন নাবালিকা নির্যাতন মানবাধিকার লংঘনের সামিল। যদি এরকম ঘটনা ঘটে থাকে, আমরা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

রাজৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আনিসুজ্জামান জানান, ঘটনাটি শুনেছি। মেয়েটি নাবালিকা এবং তার বাব-মার কাছেই আছে। সে যদি তার বাবা-মার কাছে নিরাপদ বোধ না করে, তার সাথে যোগাযোগ করে তাকে সরকারী সেভ হোমে রাখার ব্যবস্থা করা হবে।

Comments

comments

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

add 720x200

Leave a Reply




add 300x600

উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক