শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:০২ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ-
রাজৈর নিউজ অনলাইন পত্রিকার পক্ষ থেকে আপনাদের স্বাগতম। নিত্যনতুন সকল সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।ফেসবুক পেইজ থেকে আমাদের নিউজে চোখ রাখুন:- https://www.facebook.com/rajoirnews  তাছাড়া সংবাদ এর ভিডিও দেখুন ইউটিউব থেকে  BanglaNews Tube
সর্বশেষ সংবাদঃ-
উপজেলা উপ-নির্বাচনঃ ভোট কেন্দ্রের ভিতরে যাওয়া আসাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ রাজৈরে উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার জয় টেকেরহাট বন্দরে চিকিৎসার অবহেলায় সদ্য ভূমিষ্ঠ শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ,ধামাচাপা দেয়া চেষ্টা রাজৈরের টেকেরহাটে নৌকা প্রতীক পোড়ানোর প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল  রাজৈরে নৌকা প্রতীক পোড়ানোর অভিযোগে মামলা দায়ের। আওয়ামীলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে নৌকার পক্ষে কাজ না করার অভিযোগ শিবচরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে নবম শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষন, ধর্ষক গ্রেফতার মাথায় মাফলার পেচানোর সময় ছোয়া রাজৈরে দুই গ্রামবাসির মধ্যে রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষ,দোকানপাট ভাংচুর,পুলিশের শর্টগানের গুলি ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ,৪০ জন আহত রাজৈরে প্রতিবন্ধী শিশুদের মাঝে নতুন বই ও শীতবস্ত্র বিতরণ রাজৈরে ৩দিন ব্যাপী শীতকালীন মেয়েদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন রাজৈরে ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে যুবক নিহত,আহত ২
দৈনিক যুগান্তর সংবাদ প্রকাশের পর সেই অসহায় নারীর পাশে ফ্রিল্যান্স পারভেজ

দৈনিক যুগান্তর সংবাদ প্রকাশের পর সেই অসহায় নারীর পাশে ফ্রিল্যান্স পারভেজ

Untitled-1 copy

add 720x200

নিউজ ডেক্সঃদৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় প্রতিবেদন গত ১৩ই ডিসেম্বর পঞ্চগড়ের স্তন ক্যান্সার আক্রান্ত ৫০ বছর বয়সী কুলসুম বেগমকে নিয়ে ‘অসহ্য যন্ত্রণা সয়ে যেন মৃত্যুর জন্য অপেক্ষা!’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয় যুগান্তর অনলাইনে। এরপর সেই অসুস্থ মহিলার পাশে দাঁড়ালেন ফরিদপুরের সমাজকর্মী, ফ্রিল্যান্স জার্নালিস্ট ও ইউটিউবার পারভেজ চোকদার। শনিবার সকালে পারভেজ চোকদার যুগান্তরের মাধ্যমে কুলসুম বেগমের হাতে আর্থিক সহযোগিতা পৌঁছান। তিনি কুলসুম বেগমকে তার প্রয়োজনীয় একমাসের সকল ওষধপত্র কিনে দেন। বর্তমানে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত কুলসুমের কেমোথেরাপি চলছে। চিকিৎসকরা বলছেন, কেমোথেরাপি শেষে অবস্থার উন্নতি হলে তার অপারেশন করানো হবে।

স্ত্রীর অসুস্থতার ব্যাপারে মো. সেলিম জানান, কয়েক বছর হলো কুলসুমের সমস্যাটা বুঝতে পারে। কিন্তু পরীক্ষা করানো হয়নি। সম্প্রতি রংপুরে ডাক্তার দেখাই এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানতে পারি আমার স্ত্রী স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত। বর্তমানে তার অবস্থা খুব খারাপ। যুগান্তরের মাধ্যমে যে আর্থিক সহযোগিতা পেয়েছি সেটি বেশ কাজে লেগেছে। তিনি বলেন, ডাক্তার আপাতত চারটা কেমোথেরাপি দিতে বলেছেন। কেমোথেরাপির পর অবস্থা সুবিধাজনক হলে তারা স্তন অপসারণসহ পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন। অনেক কষ্টে স্ত্রীর কিছু গহণা আর মানুষের সাহায্যে দুইটা কেমো ইতোমধ্যে দিয়েছি। বর্তমানে কেমো দেওয়ার মতো আর কোনো টাকা নেই। এসব কথা বলতেই হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন সেলিম।

পারভেজ চোকদার যুগান্তরকে বলেন, আমি সবসময় সাধ্যমত অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি। যুগান্তরের সংবাদটি দেখার পর থেকেই হৃদয়ে ব্যাথা অনুভব করতে থাকি। পরে মায়ের বয়সী কুলসুম পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি। দোয়া করি তিনি দ্রুত সেরে উঠবেন। বর্তমানে সেই কুলসুমের অবস্থা খুব একটা ভালো নেই। তার মাথার চুল উঠে যাচ্ছে, দাঁত পড়ে গেছে।

তিনি বলেন, ব্যাথার যন্ত্রণায় ঘুমাতে পারি না। প্রতিনিয়ত মনে হচ্ছে মরে যাচ্ছি। বাবারা আপনারা পারলে আমাকে বাঁচান। দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায় অল্প বয়সেই দিনমজুর মো. সেলিমের সঙ্গে ঘর বাঁধেন কুলছুম বেগম। তাদের ঘর আলো করে একে একে আসে চার কন্যা। স্বামী-স্ত্রী দিনরাত পরিশ্রম করে কোনমতে সংসার চালাতে থাকেন। এর মধ্যে চার কন্যাকে বিয়েও দেন কুলসুম। সংসার সামলাতে এবং মেয়েদের বিয়ে দিতে গিয়ে নিজেদের সঞ্চয় বলতে কিছুই নেই। এরমধ্যেই কুলছুম বেগমের শরীরে বাসা বেঁধেছে ক্যান্সার। অর্থের অভাবে কেমোথেরাপি দিতে পারছেন না স্বামী মো. সেলিম। যন্ত্রণায় কাতর স্ত্রীর পাশে বসে চার কন্যাকে নিয়ে যেন মৃত্যুর জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া কিছুই করার নেই তার।

Comments

comments

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

add 720x200

Leave a Reply




add 300x600

উন্নয়ন সহযোগীতায়ঃ- সেভেন ইনফো টেক